অমুসলিমের পান করা অবশিষ্ট পানি কি নাপাক?

বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদেরকে অমুসলিমদের সাথে চলতে হয়। অনেক সময় একসাথে পানাহারও করা হয়। কখনো একই পাত্রে পানিও পান করার প্রয়োজন দেখা দেয়। এক্ষেত্রে যে বিপত্তিটা ঘটে তা হল- অনেকের ধারণা, অমুসলিমের ঝুটা পানি নাপাক, তা পান করা যাবে না।

তাদের এ ধারণা ঠিক নয়। নাপাকীর নির্ধারিত কারণ ছাড়া সাধারণ অবস্থায় অমুসলিমের লালা নাপাক নয় এবং তাদের ঝুটা পানিও নাপাক নয়। প্রয়োজনের সময় একই পাত্র থেকে পান করতে কোনো অসুবিধা নেই।

কুরআনে মুশরিকদেরকে যে ‘নাজিস’ তথা নাপাক বলা হয়েছে- সেটা তাদের আকীদা ও বিশ্বাসের অপবিত্রতার কারণে; এজন্য নয় যে, তাদের শরীরে নাপাকী না থাকলেও তা নাপাক গণ্য হবে। (তাফসীরে ইবনে কাসীর, সূরা তাওবার ২৮ নং আয়াত-এর তাফসীর দ্রষ্টব্য)

আসলে অমুসলিমদের সাথে গভীর মহব্বতের সম্পর্ক হওয়া, তাদের উৎসব ইত্যাদিতে অংশগ্রহণ করা নিষেধ। কিন্তু প্রতিবেশী হিসেবে তাদের হক আদায় করা, প্রয়োজনে শরীয়তের সীমা রক্ষা করে তাদের সাথে লেনদেন ইত্যাদি নিষেধ নয়।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

কোরবানির গোস্ত যেভাবে বন্টন করবেন

নূর নিউজ

অনিষ্ট থেকে নিরাপদে থাকার আমল

নূর নিউজ

কুরআন অবমাননাকারী মামুনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে : হেফাজত

নূর নিউজ