ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করা হলো কেন? প্রশ্ন কাদের মির্জার

বসুরহাট পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওয়াজ মাহফিল করতে পারমিশন দেওয়ার পরও কেনও ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করে দেওয়া হলো- জানতে চান সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই ও নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। তিনি বলেন, ‘আমি বসুরহাট পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওয়াজ মাহফিল করতে পারমিশন দিয়েছিলাম। কিন্তু আমি কেন পারমিশন দিলাম এ জন্য আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করে দেওয়া হলো। আজকে কেন ওয়াজ বন্ধ করেছে। আপনারা এলাকার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হোন। কী জন্য ওয়াজ বন্ধ করেছে, জবাব দিতে হবে।’

বুধবার বেলা ১১টায় বসুরহাট বাজার ঘুরে দেখে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘শুধু ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করে তারা ক্ষান্ত হচ্ছেন না। আমি বসুরহাট প্রথম শ্রেণির পৌরসভার মেয়র; কিন্তু আজকে সাধারণ পুলিশ অফিসার দিয়ে আমাকে অপমান করাচ্ছে। নানাভাবে লাঞ্ছিত করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে ওয়াজের সঙ্গে যারা জড়িত ছিলেন। যে আপনাদের ওয়াজ বন্ধ করেছে। লিখিত নেন। সেই লিখিত প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠাব, মন্ত্রীর কাছে পাঠাব। কেন তারা ওয়াজ বন্ধ করল। কীর্তনের দিন কীর্তন হলো, আমি সেখানে গেলাম। সেখানে অনেকক্ষণ ছিলাম। কিন্তু সেখানে বাধা দিল না। ওয়াজ কেন বন্ধ করল। শুধু মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য এটা করেছে। এভাবে নানা ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত— প্রতিদিন।’

তিনি বলেন, ‘জনতার আদালতে হবে। কেন তারা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করল। আমি এটার বিচার চাই। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার চাই— কেন ওয়াজ বন্ধ করা হলো? এটার বিচার আমি চাই।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘এই ইউএনও, ওসি, তদন্ত অফিসার ওবায়দুল কাদেরের সহযোগিতা এখানে আছে। আজকে মুসলিম সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার জন্য তারা এই কাজ করছে। মুসলিম সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার বিচার আল্লাহ একদিন করবে। আল্লাহর বিচার বড় বিচার।’

উল্লেখ্য, নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার এক ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ ঘোষণা দেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

ডিসেম্বরই উদ্বোধন বঙ্গবন্ধু টানেল

নূর নিউজ

রমজানকে স্বাগত জানিয়ে চট্টগ্রামে ছাত্রলীগের মিছিল

নূর নিউজ

দেশ ইসলাম ও মাদরাসা বিরোধী যেকোন ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে হবে: মাওলানা আজিজী

আলাউদ্দিন