চীনে দুই সন্তান নীতির অবসান

নূর নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘ দিন ধরেই চীনে দুই সন্তান নীতি অর্থাৎ দুই সন্তানের বেশি নেওয়া যাবে না- প্রচলিত ছিল। তবে সাম্প্রতিক সময়ে দেশটিতে জনসংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে কমে যাওয়ায় সে নীতি থেকে সরে আসলো বেইজিং। চীন সরকার জানিয়েছে, এখন থেকে দেশটির দম্পতিরা তিন সন্তান পর্যন্ত নিতে পারবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সম্প্রতি চীনের ক্ষমতাসীন দলের পলিট ব্যুরোর মিটিংয়ে পরিবর্তিত নীতিতে অনুমোদন দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এর মাধ্যমে দেশটির দীর্ঘ দিনের দুই সন্তান নীতির আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্তি ঘটে।

চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়ার বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই সন্তান নীতির কারণে বিগত কয়েক দশক ধরেই জনসংখ্যা কমছে চীনে। সর্বশেষ আদমশুমারিতেও তার আগের বছরগুলোর চেয়ে শিশু জন্মের হার কমেছে। এই অবস্থায় এক প্রকার তড়িঘড়ি করেই আগের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলো চীন সরকার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীন সরকার জনসংখ্যা কমার পরিপ্রেক্ষিতে একটা চাপ অনুভব করছিল। সেজন্যই নিজেদের দীর্ঘ দিনের এই নীতি থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নেয় বেইজিং। এর ফলে চীনা দম্পতিরা আরো সন্তান নিতে আগ্রহী হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গেছে, চলতি মে মাসের শুরুর দিকে চীনের সর্বশেষ আদমশুমারির প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এতে দেখা যায়, গত বছর দেশটিতে প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ শিশুর জন্ম হয়েছে। যা বিগত কয়েক বছরের মধ্যে বেশ কম। ২০১৬ সালেও এই সংখ্যা ছিল ১ কোটি ৮০ লাখ। অর্থাৎ ২০২০ সালে চীনে শিশু জন্মের সংখ্যা ১৯৬০ এর দশকের পর সবচেয়ে কম হয়েছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

গরুর মাংস থেকে ‘হালাল’ শব্দ বাদ দিলো ভারত

আলাউদ্দিন

আবারও বাড়তে পারে লকডাউন

আনসারুল হক

ইতালির দ্বীপে ৫ নৌকায় শত শত অভিবাসী

আনসারুল হক