প্রথম মুসলিম মার্কিন রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন রাশেদ হোসেন

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম কোনো মুসলিমকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

বাইডেন প্রশাসন রাশেদ হোসেন নামে এক কূটনীতিককে রাষ্ট্রদূত পদমর্যাদার আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক অ্যাম্বাসাডর-অ্যাট লার্জ হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে। খবর আরব নিউজের।

মার্কিন সিনেটে চূড়ান্ত অনুমোদনের পর এ পদে নিযুক্ত হবেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এ মার্কিন কূটনীতিক রাশেদ হোসেন।

হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে শুক্রবার জানায়, ৪১ বছর বয়সি রাশেদ হোসেনই প্রথম মুসলিম, যিনি যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রদূত পদমর্যাদায় নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন।

রাশেদ হোসেন এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের পার্টনারশিপ অ্যান্ড গ্লোবাল অ্যাজ্ঞেজম্যান্ট বিভাগের প্রধান ছিলেন। ওবামার শাসনামলে তিনি ওআইসির মার্কিন দূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এ ছাড়া পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত খিজির খানকে ইউসিআইআরএফের (ইউনাইটেড স্টেটস কমিশন অন ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম) কমিশনার হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

এ কমিশনের কাজ হচ্ছে— মুসলিমপ্রধান দেশগুলোতে সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত করা।

এদিকে রাশেদ হোসেনের এ মনোনয়নকে স্বাগত জানিয়েছে মার্কিন ইহুদিরা।

আমেরিকান জিউস কমিটির (এজেসি) পরিচালক ডেবিড হ্যারিস বলেছেন, আমরা মনে করি রাশেদ হোসেন মুসলিম ও ইহুদিদের মধ্যে সেতুবন্ধ রচনা করবেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

বন্ধ হয়ে যেতে পারে আমেরিকান নাগরিকদের দেশে ফেরা

আনসারুল হক

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৬ লাখ ছাড়াল

আনসারুল হক

কিছু লোক হাতুড়ি-শাবল দিয়ে আশ্রয়ণের ঘর ভেঙেছে: প্রধানমন্ত্রী

নূর নিউজ