মাওলানা শামসুল ইসলামের জানাজায় শোলাকিয়া ঈদগাহে মানুষের ঢল

প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদের খতিব শায়খুল হাদিস মাওলানা শামসুল ইসলামের জানাজা আজ মঙ্গলবার সকাল ১০.২৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় অংশ নিতে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে মুসল্লিদের ঢল নামে।

শায়খুল হাদিস ,মাওলানা শামসুল ইসলাম (৬৮) গতকাল সোমবার দুপুর ২টা ০৫ মিনিটে বার্ধক্যজনিত কারণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

তিনি ১৯৮৬ সাল থেকে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদের খতিব এবং ১৯৮৩ সাল থেকে ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আল জামিয়াতুল ইমদাদিয়ার শাইখুল হাদীস হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

কিশোরগেঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদি মসজিদে তিনি প্রতি শনিবার রাতে তাফসির পেশ করতেন। সুরা ফাতেহা থেকে সুরা আল-কদর পর্যন্ত তাফসির সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তার তাফসির শুনতে দেশের বিভিন্ন জেলা-শহর ও প্রান্ত থেকে মানুষ কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদী মসজিদে এসে উপস্থিত হতো। তার তাফসির থেকে দ্বীনের দীক্ষা নিয়েছেন, আলোর পথে ফিরে পেয়েছেন অসংখ্য পুরুষ ও নারী।

দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা জটিল রোগে ভুগছিলেন আল্লামা শামসুল ইসলাম। গত ১৯ জানুয়ারি তাকে প্রথমে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। প্রথমে রাজধানীর আজগর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরিবারের সদস্যরা দেশবাসীর কাছে তার আত্মার মাগফিরাতের জন্য দোয়া চেয়েছেন। প্রখ্যাত এ আলেমে দ্বীনের মৃত্যুতে কিশোরগঞ্জসহ সারাদেশের আলেম সমাজ ও মুসল্লিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

নাপা সিরাপ নয়, মায়ের পরকীয়া প্রেমেই প্রাণ যায় সেই দুই শিশুর!

নূর নিউজ

লকডাউনের দেড় বছর পর দোকান খোলার অনুমতি পেলেন ব্যবসায়ীরা!

নূর নিউজ

সাগরে নিম্নচাপ, ‘শক্তিশালী’ ঘূর্ণিঝড় হতে পারে

নূর নিউজ