মাকামে ইব্রাহিমের স্বচ্ছ ছবি প্রকাশ করলো সৌদি

নতুন কৌশল ব্যবহার করে মাকামে ইব্রাহিমের বিস্তৃত ছবি তুলেছে মক্কা ও মদিনার দুই মসজিদের দায়িত্বে থাকা জেনারেল প্রেসিডেন্সি। আনুপুঙ্খিক সেই ছবি প্রকাশ করেছে সৌদি আরব। মসজিদুল হারামে এই পবিত্র পাথরটি রয়েছে।

মাকামে ইব্রাহিম বলতে সেই পাথরকে বুঝায় যেটা কাবা শরিফ নির্মাণের সময় ইসমাইল নিয়ে এসেছিলেন, যাতে পিতা ইব্রাহিম সেটির ওপর পা রেখে কাবা ঘর নির্মাণ করতে পারেন।
ইসমাইল (আ.) পাথর এনে দিতেন, ইব্রাহিম (আ.) তার পবিত্র হাতে তা কাবার দেওয়ালে রাখতেন। ওপরে উঠার প্রয়োজন হলে পাথরটি অলৌকিকভাবে ওপরের দিকে উঠে যেত।

নবীর পায়ের ছাপ সংরক্ষণ করতে পাথরটি স্বর্ণ, রূপা ও গ্লাসের ফ্রেমে আবদ্ধ করে দেয়া হয়েছে। হাজরে আসওয়াদ থেকে মাকামে ইব্রাহিমের দূরত্ব ১৪ দশমিক পাঁচ মিটার।

তাওয়াফ শেষে মাকামে ইব্রাহিমের পেছনে দুরাকাত সালাত আদায় করতে হয়। জায়গা না পেলে অন্য কোথাও আদায় করলে সালাত হয়ে যায়।

এর আগ হাজরে আসওয়াদের স্বচ্ছ ছবি প্রকাশ করেছে সৌদি আরব। হাজরে আসওয়াদের আভিধানিক অর্থ কালো পাথর। মুসলমানদের কাছে এটি অতি মূল্যবান ও পবিত্র। আগে এটি ছিল আস্ত একটা পাথর।

হজরত আবদুল্লাহ বিন জোবায়েরের শাসনামলে কাবা শরিফে আগুন লাগলে হাজরে আসওয়াদ কয়েক টুকরা হয়ে যায়।

আবদুল্লাহ বিন জোবায়ের পরে ভাঙা টুকরাগুলো রূপার ফ্রেমে বাঁধিয়ে দেন। ফ্রেম সংস্করণের সময় চুনার ভেতর কয়েকটি টুকরা ঢুকে যায়। বর্তমানে হাজরে আসওয়াদের আটটি টুকরা দেখা যায়।এগুলোর আকৃতি বিভিন্ন রকম। ফ্রেমে মুখ ঢুকিয়ে হাজরে আসওয়াদে চুম্বন করতে হয়।

-আল-আরাবিয়াহ

এ জাতীয় আরো সংবাদ

ইসলামের প্রতি ভালোবাসা থেকে মুসলিম হলেন পূজা রানী

আলাউদ্দিন

বাংলা ভাষায় মহানবী (সা.)-এর জীবনচরিত

আনসারুল হক

এবছর জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৩১০

আনসারুল হক