স্কুল ঘরের দরজা বন্ধ করে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা : শিক্ষকের ১০ বছরের কারাদণ্ড

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার পূর্ব কৃষ্টপুর গ্রামের চতুর্থ শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রীকে শ্লীলতাহানি চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আরিফুল ইসলাম (৩৮) নামে এক প্রাইভেট শিক্ষককে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৫ মার্চ) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রস্তম আলী এ রায় প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আরিফুল ইসলাম একই গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ১৩ মার্চ সকালে ওই গ্রামের আরিফুল ইসলাম নয় বছর বয়সী চতুর্থ শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানোর সময় স্কুল ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ধর্ষণ চেষ্টার শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা ওই দিনই কালাই থানায় মামলা করেন। পরে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেন আসামি আরিফুল ইসলাম। এরপর থেকে সে পলাতক রয়েছে।

সরকারি পক্ষের আইনজীবী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাড. ফিরোজা চৌধুরী বলেন, শ্লীলতাহানির চেষ্টা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আসামিকে ১০ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়। একইসাথে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড আদেশ দেন বিচারক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

হেফাজতের ঢাকা মহানগর কমিটির পদায়ন সম্পন্ন

নূর নিউজ

দেশবাসীকে মাওলানা মুহিউদ্দিন রাব্বানীর ঈদের শুভেচ্ছা

নূর নিউজ

রমজানের টেলিভিশনে অশ্লীলতা বন্ধ রাখতে হবে: চরমোনাই পীর

নূর নিউজ