হাসতে হাসতে আত্মহত্যা করলেন আয়েশা

নদীতে ঝাঁপ দিয়ে হাসতে হাসতে আত্মহত্যা করেছেন আয়েশা নামের ২৩ বছর বয়সী এক তরুণী। আত্মহত্যার আগে নদীর ধারে হাসিমুখে একটি ভিডিও রেকর্ড করেছেন তিনি। সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভারতের গুজরাটের আমদাবাদের সবরমতী নদীতে এ ঘটনা ঘটে। খবর আনন্দবাজারের।

ভিডিও থেকে জানা গেছে, নিজের ইচ্ছাতেই জীবন শেষ করছেন তিনি। তবে তার বাবার অভিযোগ, যৌতুকের জন্য শ্বশুরবাড়িতে প্রতিনিয়ত ঝামেলার জেরেই আত্মহত্যা করেছেন আয়েশা।

পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনা নিয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। নদীর তীর থেকে আয়েশার লাশও উদ্ধার করা হয়েছে।

মেয়ের মৃত্যু নিয়ে আয়েশার বাবা লিয়াকত আলি জানিয়েছেন, রাজস্থানের জালোরের বাসিন্দা আরিফ খানের সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে হয়েছিল ২০১৮ সালের জুলাই মাসে। তিনি বলেন, বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য চাপ দিতে শুরু করেন শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সেসময় আমি কিছু টাকা দিয়েছিলাম। কিন্তু তাদের লোভ এতে বেড়ে যায়। কয়েক মাস আগে আয়েশার সঙ্গে ঝামেলা হয় আরিফের। তার পর আয়েশা আমার বাড়িতে ফিরে আসে। এরপর ফোনেও কথা হতো না তাদের।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে আয়েশাকে বলতে শোনা গেছে, ‘যে সিদ্ধান্ত আমি নিতে যাচ্ছি, এর জন্য কেউ আমাকে চাপ দেয়নি। বুঝলাম আল্লাহ আমাকে ছোট্ট জীবনই দিয়েছেন। বাবা, তুমি আর কত লড়বে? মামলা তুলে নাও। যে স্বাধীনতা চায়, তাকে মুক্ত করে দাও।’

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক যুগ পর ভারতে পা রাখলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নূর নিউজ

ইসরাইলকে বিচারের আওতায় আনল আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

আলাউদ্দিন

নিউইয়র্ক পুলিশের শীর্ষ পদে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আব্দুল্লাহ, স্থানীয়দের মাঝে আনন্দঘন পরিবেশ

নূর নিউজ