বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক, যুবক গ্রেপ্তার

মুঠোফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে তরুণীর সঙ্গে প্রেম। বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক। পরে ওই তরুণী বিয়ের কথা বলায় মারধর করে তাড়িয়ে দেন সেলিবুর রহমান নামের (২৫) যুবক। পরে তার নামে থানায় মামলা করেছেন ওই তরুণী।

গ্রেপ্তার সেলিবুর রহমান সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শেরপুর গ্রামের কমরু মিয়ার ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ শুক্রবার বিকেলে তাকে সুনামগঞ্জের আদালতে তোলা হলে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, ২০১৭ সালে মুঠোফোনে একই উপজেলার ২০ বছর বয়সী এক তরুণীর সঙ্গে মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন সেলিবুর রহমান। চলতি বছরের ২০ এপ্রিল সিলেট আদালতে নোটারির মাধ্যমে বিয়ের কথা বলে ওই তরুণীকে বাড়ি থেকে নিয়ে যান। পরে সিলেট টুকেরবাজার এলাকায় এক আত্মীয়ের বাসায় রাত্রিযাপন করেন তারা। এ সময় ওই তরুণীর সঙ্গে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক করেন সেলিবুর। সবশেষ গত মঙ্গলবার ওই তরুণীর বাড়িতে যান সেলিবুর। সেখানে ওই তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ ওঠে সেলিবুরের বিরুদ্ধে। পরে তরুণী চিৎকার দিলে সেলিবুর পালিয়ে যান।

জগন্নাথপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাজিব রহমান জানান, ভুক্তভোগী তরুণীর দায়ের করা মামলায় গতকাল বৃহস্পতিবার সেলিবুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ

মগবাজারে ভয়াবহ বিস্ফোরণ : নিহত ৭, আহত অর্ধশতাধিক

আনসারুল হক

এত সস্তায় তিস্তার পানি দেব না, মমতা

আলাউদ্দিন

সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরুর ইন্তেকাল

আনসারুল হক